বিনোদন সাক্ষাৎকার

নিজের বই নিয়ে প্রচ্ছদশিল্পী অমরজিৎ যা বললেন

১. একটু ডিটেইলে জানতে চাই, হাইকু কি ? হাইকু কবিতা না কি শুধুই হাইকু ?

দেখুন কবিতা তো অবশ্যই, তবে প্রবহমান ধারার কবিতা থেকে একটু ভিন্ন ধরনের। ভিন্ন এই কারণেই যে হাইকু কবিতা লেখার একটা নিজস্ব রীতি আছে। আর এই রীতি যদিও জাপানি ভাষা ছাড়া অন্য কোন ভাষায় ব্যবহার করা খুব একটা সম্ভব হয় না, তবুও তিন লাইনে ও ৫-৭-৫ সিলবলস অক্ষরে যতটা সম্ভব কম ত্রুটি রেখে হাইকু লেখার চেষ্টা করেছি আমাদের এই মাতৃভাষায়।

২. তা প্রবহমান ধারার কবিতা ছেড়ে হাইকু কেন ?

প্রবহমান ধারার কবিতা যে লিখি না তা একেবারেই না, তবে হাইকু লেখার প্রতি আকর্ষণটা একটু বেশি বলতে পারেন। এর পেছনেও একটা ছোট্ট ইতিহাস আছে। ২০১৫ সালের দিকে যখন প্রথম হাইকু লেখা শুরু করি তখন লোকজনের কাছ থেকে অনেক কথা শুনতে হয়েছিল । “তিন লাইনের আবার কবিতা হয় না কি , শুরুতেই শেষ, না মাথা আছে না আছে মুন্ডু” ইত্যাদি ইত্যাদি। তারপর কোন এক জেদের বশবর্তী হয়ে আরও বেশি করে শুরু করি হাইকু চর্চা। হাইকু নিয়ে নতুনত্ব কিছু করার চেষ্টা করতে থাকি প্রতিনিয়ত । তবে আজ এ কথা স্বীকার করতেই হবে যে তাঁদের সেদিনের নাক ছিঁটকোনো কথা আমার আজকের হাইকু লেখার অনুপ্রেরণা । ধন্যবাদ সেই সকল গুণীজনদের ।

৩. এটা আপনার ষষ্ঠ কাব্যগ্রন্থ জানলাম। হাইকু নিয়ে স্বনির্বাচিত হাইকু কাব্যগ্রন্থ কি প্রথম?

না, হাইকু নিয়ে এর আগে দুটি বই প্রকাশিত হয়েছে । ‘দিশেহারা হাইকু’ দিয়েই আমার হাইকু পরিচিতি । পরে ‘শূন্যে চৌকাঠ’ নামে আর একটি বই প্রকাশ হয়। তবে স্বনির্বাচিত হাইকু হাইকু’র নতুনত্বে প্রথম । কারণ এক্ষেত্রে থাকছে এক বিশেষ ধারা, সিরিজ হাইকু ।

৪. এরপর কি ?

সেরকম কোন ভাবনা নেই । তবে হাইকু নিয়ে আরও চর্চা ও কাজ করার ইচ্ছে আছে ।

৫. স্ব নির্বাচিত হাইকু নিয়ে প্রথম বছরের শুরুতেই প্রাপ্তি কি ?

অংশুমান স্যার ও অজিতেশ দা কে আমার এই বই এর পাশে পাওয়া । সঙ্গে পাঠকের অগ্রিম রেসপন্স । তবে এসবের বাস্তব রূপ প্রদানে যে সাহায্য করেছে তার কথা না বললেই না । শোভন সেনগুপ্ত ।

৬. বিভিন্ন বইয়ের প্রচ্ছদ করছেন নিয়মিত। কবিতা লিখছেন, ফেসবুকের বিভিন্ন পেজে প্রকাশিত হচ্ছে আপনার গল্প। এই বইয়ের প্রচ্ছদ ও আপনি নিজেই করেছেন। শিল্পের কোন দিকে বিশেষ ভাবে ছাপ রাখতে চান?

দেখুন ছাপ থাকবে কি না সে তো পাঠক, দর্শক ও ভবিষ্যৎ বলতে । তবে একথা বলতে পারি যতদিন বাঁচব ততদিন এই সকল ক্ষেত্রের মধ্যে বিচরণে নিজেকে নিমগ্ন রাখব ।

৭. কি রকম হাইকু পাবে পাঠকেরা বইটিতে ?

আগে যেমন বললাম এক ভিন্ন স্বাদের অভিনব সিরিজ হাইকু থাকছে বইটিতে। সঙ্গে প্রতিটি হাইকুর জন্য থাকছে পৃথক ইলাসট্রেশন । তার জন্য অবশ্যই ধন্যবাদ জানাতেই হয় ইলাসট্রেটর অঙ্কিতা কারুকে । তবে বেশির ভাগ হাইকু’র মধ্য দিয়ে সমাজের বাস্তব চিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করেছি ।

৮. প্রেম থাকছে ?

হ্যাঁ থাকছে ।

৯. আর অমরজিৎ-এর জীবনে প্রেম আছে তো ?

না, হয়ে ওঠেনি ।

১০. প্রি বুকিংয়ের খবর পেয়েছেন তো ? প্রকাশের আগেই ডজন দেড়েক বই অর্ডার হয়ে গেছে। আপনার নির্দিষ্ট পাঠক গোষ্ঠী তৈরী হয়েছে, কি মনে হয়?

হ্যাঁ পেয়েছি । আমার মত একজন আনকোড়া শব্দের কারিগরের বই প্রকাশের আগেই এতগুলো প্রি বুকিং হয়ে গেল সত্যিই কল্পনার বাইরে । স্বপ্নেও ভাবতে পারিনি । তাই এপ্রাপ্তি আমার না, পাঠকের ।

১১. কিছু মেসেজ দেবেন পাঠকদের জন্য ?

একটাই কথা আপনাদের ভালোবাসা আমার অনুপ্রেরণা । তাই প্রকাশের আগে ও পরে উভয় সময়েই এই ভালোবাসা পাওয়ার অপেক্ষায় রইলাম । ধন্যবাদ ।

Facebook Comments

You Might Also Like